অজয়ের বাঁধ ভেঙে বানভাসি বর্ধমানের বিস্তীর্ণ এলাকা, দুর্গতদের পাশে অরূপ বিশ্বাস

Spread the love


#বর্ধমান: হিংলো জলাধার থেকে জল ছাড়ায় অজয়ের বাঁধ ভেঙে প্লাবিত আউশগ্রাম ২ নং ব্লকের সাঁতলা গ্রাম (Bangla News | Ajay River Flood)। কয়েকশো বিঘা চাষের জমি ক্ষতিগ্রস্ত। ভেঙে পড়েছে প্রায় ৫০ থেকে ৬০ টি বাড়ি। অজয়ের বাঁধেই এখন ত্রিপল টাঙিয়ে তাঁরা বসবাস করছেন। ফি-বছরই অজয়ের জলে প্লাবিত হয় আউশগ্রামের সাঁতলা-সহ বিস্তীর্ন এলাকা (Bangla News | Ajay River Flood)। বাঁধের রক্ষণাবেক্ষণ ঠিক ভাবে হয় না বলে অভিযোগ গ্রামবাসীদের। সরকারি তরফে ত্রাণ দেওয়া হলেও তা পর্যাপ্ত নয় বলে অভিযোগ। অবিলম্বে ক্ষতিপূরণের দাবি গ্রামবাসীদের (Bangla News | Ajay River Flood)।

পূর্ববর্ধমান জেলায় এখনও পর্যন্ত জেলা প্রশাসনের রিপোর্ট অনুযায়ী ৯ টি ব্লকের ২৩ টি গ্রাম পঞ্চায়েত দামোদর ও অজয়ের জলে ক্ষতিগ্রস্ত। জেলাজুড়ে প্রায় ২ হাজার থেকে ২.৫ হাজার কাঁচাবাড়ি সম্পূর্ণ ও আংশিক ভাবে ভেঙে পড়েছে। অজয়ের জল নামতে শুরু করলেও দুর্ভোগ কমেনি কেতুগ্রাম ও মঙ্গলকোটের কয়েক হাজার পরিবারের। বন্যার হাত থেকে নিজেদের সংসার বাঁচাতে যে যেখানে পেরেছেন উঁচু জায়গায় উঠে বাঁচার চেষ্টা করছেন। কেউ আছে রাজ্য সড়কের পাশে দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাকে, আবার কেউ রাস্তার পাশে ত্রিপলের তাঁবুতে।

Read Also:  আইপিএল ২০২১: অনুষ্কা শর্মার থেকে কোন অনুপ্রেরণা নিচ্ছেন বিরাট কোহলি

বানভাসি গ্রাম। বানভাসি গ্রাম।

কেতুগ্রামের বিল্বেশ্বর গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় ২২ টি গ্রাম বন্যা প্রবণ এলাকা হলেও কোন ফ্লাডশেল্টার না থাকায় বন্যার সময় মানুষের দুর্গতি বেশি হয়। কেতুগ্রাম ২ ব্লক প্রশাসনের পক্ষ থেকে ত্রাণ শিবির খোলা হয়েছে। দেড়শ পরিবারের দুবেলা রান্না করা খাবার দেওয়া হচ্ছে। বন্যা দুর্গতদের অভিযোগ অনেকে এখন ত্রিপল পায়নি, এমন কিছু পরিবার আছে যাদের বাড়ি সম্পূর্ণ ভেঙে গিয়েছে। জল নেমে গেলে তাদের মাথা গোঁজার মত জায়গা নেই। সেই সব পরিবার সরকারের কাছে ঘর চাইছে। বিল্বেশ্বর পঞ্চায়েতের বাস্তুকার জানান, ‘আমরা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা তৈরির কাজ শুরু করেছি। যাদের বাড়ি নষ্ট হয়ে গিয়েছে তারা যাতে ঘর পায় তার ব্যবস্থা করা হবে। এছাড়াও আমরা পঞ্চায়েতের পক্ষ থেকে ত্রাণ শিবির খুলেছি।’

Read Also:  Bardhaman news: সত্যিই কি মাটিতে পোঁতা মহিলার দেহ? মা-কে ছেলের খুনের কারণ শুনে অবাক গ্রামবাসী

অজয় নদের জলস্তর নেমে গেলেও বিধ্বংসী বন্যার চিহ্ন হিসেবে ভাঙা রাস্তা পড়ে রয়েছে। বহু গ্রাম যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গিয়েছে। কেতুগ্রামে অজয় নদের আট জায়গায় বাঁধ ভেঙে গ্রামের পর গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। কয়েক হাজার হেক্টর কৃষি জমি এখনও জলের তলায়। মঙ্গলকোটের অবস্থাও একই। অজয় নদের তিন জায়গায় বাঁধ ভেঙেছে। দুর্গতদের ত্রাণ দিতে রাজ্যের মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস শনিবার পূর্ব বর্ধমান জেলায় এসেছেন।

আরও পড়ুন: ‘একটা রাজ্য কতবার ভাসবে? প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি লিখব’, কেন্দ্রের বিরুদ্ধে তোপ মুখ্যমন্ত্রীর

Read Also:  বিশ্বভারতীতে বিক্ষোভ মঞ্চ খোলা হলেও আশঙ্কা থেকেই যাচ্ছে আন্দোলনের

Related posts:

কাজের চুক্তির মেয়াদ বাড়েনি, সমস্যায় আলিপুরদুয়ার জেলার ২৪০ জন কোভিডযোদ্ধা
৫১ সতীপীঠ স্মরণে ত্রয়োদশীতে কঙ্কালীতলায় ৫১ কুমারী পুজো
তালিবানদের ভালোবাসা দিয়ে মানবিক করতে চান মাহিকা! মোদির কাছে অনুমতি চাইলেন তিনি
আফগানিস্তানে দু'টি ভারতীয় দূতাবাসে হানা, অফিস তছনছ করে গাড়ি নিয়ে গেল তালিবানর
এই কাজটি না করে দিন শুরুই করেন না পাওলি দাম! মুম্বইয়ে চলছে বিরামহীন শুটিং...
Saif Ali Khan reaction: ছেলেদের নাম নিয়ে বারবার বিতর্ক, আর কতদিন চুপ থাকবেন সইফ, এবার মুখ খুললেন ছো...
East Bengal- ISL : ভারসাম্যের ফুটবল খেলাই লক্ষ্য ইস্টবেঙ্গল কোচের
টয়ট্রেন এবার বেসরকারি হাতে, মোদি সরকারের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে ফুঁসছে পাহাড়!
উচ্ছেবাবুর মতো বর আমার একদম পছন্দ নয়: সৌমিতৃষা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *